1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
এবার উখিয়ায় রুহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে আটকের পর পুলিশ থেকে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা। - ডেইলি টেকনাফ
মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
ঢাকা-১৪ আসনের এমপি আসলামের মৃত্যুতে সাবেক এমপি বদি’র শোক প্রকাশ লকডাউন অমান্য কারিদের বিরুদ্ধে অভিযানে নেমেছে টেকনাফ উপজেলা প্রসাশন Inauguration of office of Scrap Business Association in Teknaf in collaboration with Practical Action পাঠক শুনবেন কি? টেকনাফে প্রাকটিক্যাল এ্যাকশনের সহযোগিতায় স্ক্র্যাপ ব্যবসায়ী সমিতির অফিস উদ্বোধন দ্বিতীয়বার করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে সাবেক এমপি বদি দেশ’বাসীর কাছে দোয়া কামনা টেকনাফ সদর মৌলভী পাড়ার জোসনা বেগম গত ৫দিন ধরে নিখোঁজ,অভিযুক্ত রিয়াজের সন্ধান পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা টেকনাফে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১১ হাজার ৫৫০ টাকা জরিমানা আদায় জনসমর্থনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা করলেন নুর হোসেন চেয়ারম্যান টেকনাফে ৯৮ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

এবার উখিয়ায় রুহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে আটকের পর পুলিশ থেকে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা।

  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯

নিউজ ডেস্ক:: কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ২০ নং ক্যাম্পে পুলিশ দুধর্ষ সন্ত্রাসী আবু তাহেরকে আটক করে নিয়ে আসার সময় ৪/৫ শতাধিক রোহিঙ্গারা সন্ত্রাসীরা পুলিশকে অবরোদ্ধ করে রাখে এবং ক্যাম্পের অভ্যান্তরে রাস্তায় ব্রিগেট দেয়।বুধবার দুপুর ১২ টায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে। পরে ক্যাম্পে নিয়োজিত বিশেষ আইন শৃংখলা বাহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আসামী সহ পুলিশকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। রোহিঙ্গা ক্যাম্প বর্তমানে সন্ত্রাসীদের আরতখানায় পরিণত হয়েছে। খুন, ছিনতাই, চুরি, ডাকাতি, অবৈধ ব্যবসা, নিত্য নৈমত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

উখিয়ার ২২টি রোহিঙ্গা শিবিরে প্রায় ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা রাতের বেলায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে জানিয়েছেন রোহিঙ্গা নেতা সিরাজুল মোস্তাফা ও মোহাম্মদ নুর। সন্ত্রাসীরা দিনের বেলায় ঘুমিয়ে থাকলেও রাত হলে ক্যাম্পে ছড়িয়ে পড়ে। যার কারনে যুবতি মহিলাদের ঘরে রাখতেও তারা চিন্তিত হয়ে পড়েছে।রোহিঙ্গাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধ না হলে একদিন রোহিঙ্গারা স্থানীয়দের বিপক্ষে অবস্থান নেবে। তাই এখনো সময় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের খুঁজে বের করে আটক করার। তারা যেহেতু আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের উপরও চড়াও হয়ে উঠেছে তা ভাবতে হবে এসব সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা কতদূর পর্যন্ত পৌছেছে।পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, এনজিও সংস্থার লোকজন রোহিঙ্গাদের দা, কোড়াল, সরবরাহ দিয়েছে। তিনি বলেন, ওই সব রোহিঙ্গারা সাধারণ রোহিঙ্গাদের মারধর করতে দ্বিধাবোধ করেনা। সম্প্রতি ওইসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা বালুখালী ক্যাম্পের হেডমাঝি আরিফ উল্লাহকে প্রকাশ্যে গলা কেটে হত্যা করেছে।

বুধবার ২০ নং ক্যাম্পের ঘটনার ব্যাপারে জানতে চাইলে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার আবুল কালাম জানান, ক্যাম্প পুলিশ ১ জন উশৃংখল রোহিঙ্গাকে ধরে নিয়ে আসার সময় এ ঘটনা ঘটে। ওই সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ২ রাউন্ড ফাকা গুলি বর্ষন করে।আটককৃত সন্ত্রাসী আবু তাহের মিয়ানমারের তুমব্র“ বাজারের বাসিন্দা বলে রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ হোছন জানিয়েছেন।উখিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের বলেন, ক্যাম্প পুলিশ একজন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে আটক করে উখিয়া থানার পুলিশের নিকট সোপর্দ্দ করেছেন।  

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..