1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ফিস ফ্রাই খেয়ে এক পর্যটকের মৃত্যু!! - ডেইলি টেকনাফ
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে সাবেক এমপি বদি’র শোক! প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে নুর হোসেন চেয়ারম্যানের শোক কক্সবাজারে কাউন্সিলর কাজি মোরশেদ আহমদ বাবুর মৃত‍্যুতে নুর হোসেন চেয়ারম্যানের শোক প্রকাশ ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না কক্সবাজারসহ টেকনাফের লবণ চাষীরা টেকনাফে সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত অমর একুশের ভাষা শহীদদের প্রতি নুর হোসেন চেয়ারম্যানের শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রতি হিংসা নয় প্রতিযোগিতার মাধ্যমে উঠে আসুক তৃণমূলের অবহেলিত নতুন নেতৃত্ব: শাওন আরমান টেকনাফে বিজিবির মালিকবিহীন ইয়াবা উদ্ধার টেকনাফে সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন টেকনাফ পৌরসভায় মূলধন বিনিয়োগ পরিকল্পনা প্রস্তুতি কর্মশালা সভা অনুষ্ঠিত

কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ফিস ফ্রাই খেয়ে এক পর্যটকের মৃত্যু!!

  • আপডেট টাইম শনিবার, ১৪ মার্চ, ২০২০

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন। কক্সবাজার।।

কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ফিস ফ্রাই (ভাজা মাছ) খেয়ে এক পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।
সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে কক্সবাজার সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ফিস ফ্রাই (ভাজা মাছ) খান ফেরদৌস আলম পর্যটক দম্পতি। সামুদ্রিক মাছ ভাজা (ফিস ফ্রাই) খেয়ে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে পর্যটক ফেরদৌস আলমকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতলে নিয়ে আসলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।
মারা যাওয়া পর্যটকের নাম
ফেরদৌস আলম (৩৮)। তিনি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মসজিদ সড়ক এলাকার রফিউল আলমের ছেলে। চাকরি সূত্রে বর্তমানে তারা থাকতেন ঢাকা মিরপুর-১আনসার ক্যাম্প আহম্মদ নগর পাইকপাড়া এলাকায়।
মৃত পর্যটকের স্ত্রী ফারজানা আকতার জানিয়েছেন, তারা স্বপরিবারে শুক্রবার সকালে কক্সবাজার পৌঁছেন। তারা কলাতলীর সুগন্ধা পয়েন্টে কক্স-ইন হোটেলের ৩০৪ নং কক্ষে উঠেন। হোটেল থেকে শুক্বার সন্ধ্যার তারা ঘুরতে বের হয়ে সুগন্ধা পয়েন্টে গিয়ে ডাব ও ফিস ফ্রাই ( ভাজা মাছ) খান।
কিছুক্ষণ পর তার স্বামী অসুস্থ বোধ করেন । ফেরদৌস আলমে স্থানীয় একটি ফার্মেসীতে দেখানো হলে,তারা তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন।
রাত ৯টার দিকে ফেরদৌস আলমকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে আনা হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।
কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক এসএম নাওশাদ রিয়াদ জানান, ওই পর্যটকে হাসপাতালের আনার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। মৃতদেহ প্রাথমিক পরীক্ষা করে ধারণা করা হচ্ছে, হৃদরোগ অথবা খাবারে বিষক্রিয়ায় তার মৃত্যু হতে পারে। তবে ময়না তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি সৈয়দ আবু মো. শাহজাহান কবির বলেন, হাসপাতাল থেকে পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..