1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
জসীমের মৃত্যু শোক আজ শক্তি ও সাহস,স‍্যালুট তাঁকে | ডেইলি টেকনাফ - ডেইলি টেকনাফ
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
কক্সবাজারে ৫৩৫ কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন মাদক ধ্বংস করছে বিজিবি ঈদগাঁও থানা উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পরিচিতি ও জরুরি সভা অনুষ্ঠিত শক্তিশালী রামুকে হারিয়ে ইতিহাসের প্রথমবার ফাইনালে টেকনাফ টেকনাফ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে মোঃ আলমগীরকে কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চাই এলাকাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাবরাং ইউ,পি ছাত্রলীগের সাঃসম্পাদক নজরুল ইসলামের খোলা চিঠি টেকনাফে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা,আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের প্রতিবাদ ও নিন্দা টেকনাফ উপজেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব এজাহার মিয়ার নববর্ষের শুভেচ্ছা সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কালামের নতুন বছরের শুভেচ্ছা অসুস্থ ছেনোয়ারার চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা দান করলেন টেকনাফ পৌর মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম

জসীমের মৃত্যু শোক আজ শক্তি ও সাহস,স‍্যালুট তাঁকে | ডেইলি টেকনাফ

  • আপডেট টাইম বুধবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২০

মরিয়া প্রমাণ করিতে হইল ,,,,,,,,,,,,,,,,
জসীমের মৃত্যু শোক আজ শক্তি ও সাহস। স্যালুট তাঁকে।

ইমাউল হক পিপিএম।

এখন বড় দুঃসময়!বুঝল না তো কেউ। অন্য সময় গানটা শোনে ।এখন শোনে না।বাইরে পরী আছে ,পরীর কাছে মধু আছে ,মধুর মধ্যে কদুর রস আছে ,এই রসে জ্যোতি আছে,সেটা নিতে পারলে মতি পাবে,মতি ধরলে গতি পাবে।এই গতির লোভে ,আশায় আশায় মুরগির গামবোরো র মতই মরছে ।

কেউ শুনল না ।আর সে জন্যই কাজ করতে হল জসিম দের ।কোতোয়াল সদস্য জসিম দের যত দোষ নন্দ ঘোষ। এজন্য ই তো মানুষদের ঘরে রাখা,খাবার দেওয়া, পালানো থেকে ধরে আনা,ডাক্তার দেখানো, মরে গেলে জানাযা, কবর সব দায়িত্ব।

বিদেশ থেকে রোগ না আনলে এত প্রাণহানি হত না।ওয়ারী থানার পুলিশ সদস্য বীর জসিম কে প্রান দিতে হত না।

নাম তো হল।পুলিশ তো পিছু হটে নাই।নামী দামী বৈদ্য দের মত গদ্য নিয়ে কম্বলে জম্বল করে মরার ভয়ে অন্দরে যায় নাই।

বাপ দাদা,আর আপন রক্ত মৃত্যু র সময় চোখ না শুধু নাক ও বন্ধ করে থাকে, সেখানে জসিম রা বাপ দাদা তো দুরে থাক তার আপনের ও আপনজনদের কাজ করছে।

পুলিশের দুইশ না চারশ বছরের ইতিহাস কে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করে দিল এই জসীম দের আত্মহতি।শুধু বাংলাদেশ কেন পৃথিবীর পুলিশ গর্ব করছে “পুলিশ “নিয়ে। এর চেয়ে আর কি?

জসীম দের মরেই প্রমান করতে হয় পুলিশ জনগনের বন্ধু।জানান দিতে হয় দুইটি মেয়ে আর একটি সন্তান।অনুকম্পা নিতে হয় তার স্ত্রী বিধবা ।তাদের তো আল্লাহ্ আছেই !

শুধু কয়েক জন মানুষের রাস্তায় ঘোরাঘুরির মূল্য জসিম দের এত কিছু দিয়ে দিতে হল।অবশ্যই এই মরন বীরত্বে ভরা শহীদের স্হানে ।শক্তি ও সাহস যোগাবে আমাদের। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। স্যালুট পুলিশ কনেস্টবল জসিম কে।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..