1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হয়ে শিশুরা স্কুলে যায় আসে,গতিরোধক স্থাপন জরুরী !! - ডেইলি টেকনাফ
শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
সাবরাং নয়াপাড়া অমর একুশে গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন করেন নুর হোসেন বিএ সপরিবারে সেন্টমার্টিনে সফরে পুলিশ মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ কক্সবাজারে ৫৩৫ কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন মাদক ধ্বংস করছে বিজিবি ঈদগাঁও থানা উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পরিচিতি ও জরুরি সভা অনুষ্ঠিত শক্তিশালী রামুকে হারিয়ে ইতিহাসের প্রথমবার ফাইনালে টেকনাফ টেকনাফ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে মোঃ আলমগীরকে কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চাই এলাকাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাবরাং ইউ,পি ছাত্রলীগের সাঃসম্পাদক নজরুল ইসলামের খোলা চিঠি টেকনাফে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা,আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের প্রতিবাদ ও নিন্দা টেকনাফ উপজেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব এজাহার মিয়ার নববর্ষের শুভেচ্ছা

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হয়ে শিশুরা স্কুলে যায় আসে,গতিরোধক স্থাপন জরুরী !!

  • আপডেট টাইম বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯

মিজানুর রহমান মিজান,সাবরাং:টেকনাফের জনগুরুত্বপূর্ন এলাকা সাবরাং-শাহপরীরদ্বীপ সড়কের শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোর সামনে নেই কোন স্প্রীড ব্রেকার।ফলে এই সড়ক রূপ নিয়েছে মরণ ফাঁদে।বিগত সময়ে এসব শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোর সামনে স্প্রীড ব্রেকার থাকলেও রাস্তা মেরামতের সময় অদৃশ্য কারনে তা উঠিয়ে নেয়া হয়েছে পরবর্তীকালে তা পূনরায় স্থাপনকরা হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের জন গুরুত্বপূর্ণ এলাকা সাবরাং কমিউনিটি সেন্টার।এই এলাকাটিকে ঘিরে সড়কের পাশে গড়ে উঠেছে হাট বাজার।এর উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া শাহপরীরদ্বীপ পর্যন্ত সড়কটির পাশে রয়েছে
“সাবরাং কমিউনিটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়”

পূর্ব পার্শ্বে সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন।বিদ্যালয় মাঠ সংলগ্নে ব্যস্ততম বাজার, উত্তর পূর্ব পার্শ্বে নতুন জামে মসজিদ, ইসলামিক রিসার্স সেন্টার,
তাছাড়া আশে পাশে এক কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে নূরানী কেজি সহ আরো কয়েকটি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্টান।এসব শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোতে সব মিলিয়ে দেড় হাজারের অধিক শিক্ষার্থী রয়েছে বলে জানা গেছে।অধিকাংশ শিক্ষার্থী দশ বছরের কম বয়সী শিশু।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে প্রতিদিন শিক্ষার্থীরা পায়ে হেটে এসব শিক্ষা প্রতিষ্টানে যাতায়াত করে।এসড়কের চলাচলকারী যানবাহনগুলোর অধিকাংশ চালক কমবয়সী অদক্ষ ও বেপরোয়া।শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোর সামনে স্প্রীড ব্রেকার না থাকার কারনে অত্যাধিক বেপরোয়া যান চলাচলের ভিতর দিয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা স্কুল ছুটির সময় জীবন ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার হতে দেখা গেছে।তাছাড়া ভ্রাম্যমান গরুর ভারী ট্রাক বিদ্যালয়ের সামনে সারিবদ্ধভাবে বেপরোয়া ভাবে পার্কিং করা থাকে,ফলে শিশু বাচ্চাদের যেকোন সময় দূর্ঘঠনার সৃষ্টির সম্ভাবনা থাকে। যদিও সরকারী ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্টানের সামনে গতি রোধক ব্যবস্থা রাখার বিধান রয়েছে।বিগত সময়ে শিক্ষার্থীরা দূর্ঘটনার শিকার হলেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের টনক নড়েনি,এমনটি অভিযোগ স্থানীয় অভিবাবকদের।
স্থানিয় সুত্রে জানা যায়-গত দুই বছর আগে পেন্ডাল পাড়ার ওয়াজ করিমের ২য় শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়ে রাস্তা পারাপারের সময় বিপরীত থেকে আসা সিএনজি সজোরে ধাক্কা দিলে বাম পায়ের গুড়ালী একেবারে ভেঙ্গে যায়।সে মেয়েটি অর্ধ পঙ্গু হয়ে তার ভবিষ্যৎ অন্ধকারে চলে যায়।এভাবে শত শত বাচ্চাদের মা বাবা প্রতিদিন আতঙ্ক আর টেনশন নিয়ে তাদের শিশুদের বিদ্যালয় থেকে ফেরার অপেক্ষা করেন।ক’জনেই বা পারেন গ্রামের জীবনের সাংসারিক জীবন জীবিকা সন্ধানের ফাঁকে তার আদরের সন্তানটিকে স্কুলে নিয়ে যেতে আবার নিয়ে আসতে?

সাবরাং কমিউনিটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম অভিযোগ তুলেছেন, বিগত তিনবছর আগেও শিক্ষা প্রতিষ্টান গুলোর সামনে স্প্রীড ব্রেকার ছিলো।সড়ক মেরামতের সময় স্প্রীড ব্রেকার গুলো স্বাভাবিক ভাবে বিলীন হলেও পরবর্তীকালে পুনরায় তা বসানো হয়নাই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন ছাত্র জানান,এক সময় এই সড়ক মাদক বহন কারীদের অবাধ যাতায়াতের মহাসড়ক ছিল,তাই সংশ্লিষ্টদের সুবিধার্থে কৌশলে স্প্রীড ব্রেকার গুলো উঠিয়ে নেয়া হয়েছে।
বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী প্রায় ৫গ্রামের কোমলমতি শিশু বাচ্চাদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কমিনিউটি সেন্টার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের দুই পার্শ্ব দুইটি টেকসই গতিরোধক বা স্পীড ব্রেকার স্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের প্রতি সবিনয় অনুরুধ ও আরজ আকুতি এলাকার সব অভিবাবকদের।

এবিষয়ে টেকনাফ উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আশিক রেজা জানান,বিষয়টি তিনি অবগত নন এবং খোঁজ নিয়ে যতো দ্রুত সম্ভব উক্ত এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্প্রীড ব্রেকার তৈরীর ব্যবস্থা নেবেন

(ছবি:সাবরাং কমিনিউটি সেন্টার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়)

প্রতিবেদকঃমিজানুর রহমান মিজান।

ডেইলি টেকনাফ ডটকম

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..