1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
টেকনাফের ইতিহাস ঐতিহ্য ও সমসাময়িক ভাবনা - ডেইলি টেকনাফ
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ১২:৪০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
টেকনাফে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কোমলমতী শিক্ষার্থীদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করেন: সাবেক এমপি বদি টেকনাফ পৌরসভার নিজস্ব ভবন নির্মাণ করা হবে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ শাহ্পরীর দ্বীপে ভাসমান ড্রামসেতু নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন নুর হোসেন চেয়ারম্যান টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের ঈদ পুণর্মিলনী ও সাধারন সভায় নতুন কমিটি গঠিত টেকনাফের আবুল কালাম মেম্বারের জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল টেকনাফে আবুল কালাম মেম্বারের মৃত্যুতে সাবেক এমপি বদি’র শোক কক্সবাজার জেলায় শ্রেষ্ট পদক পেলো ওসি সহ টেকনাফের ৩কর্মকর্তা বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতি টেকনাফ পৌর শাখর কমিটি অনুমোদন টেকনাফ পৌর এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষজনের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম টেকনাফ উপজেলার ন‍্যাচার পার্ক সংলগ্ন খেলার মাঠ দখলমুক্ত করতে মানববন্ধন

টেকনাফের ইতিহাস ঐতিহ্য ও সমসাময়িক ভাবনা

  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০

মিজানুর রহমান মিজান 

সকল কিছুতেই নেগেটিভ দৃষ্টিভঙ্গি আমাদের খাছিলতে পরিণত হয়ে গেছে।সেটা দেশ ও জনগণের মঙ্গলের কাজই হোক না কেন।উপকার করলেও সেটা এখন ষড়যন্ত্র নয়ত দুশমনিই নিশ্চিত মনে করে।আসলে সেই মনে করাটা ভূলও হতে পারে।তবুও এ উল্টোমনোভাব যেন আজকের সমাজে মরণব‍্যাধিতে পরিণত হয়েছে।একই পাড়ায় একই গ্রামে একই মাটিতে সৃষ্টিকর্তার আলো বাতাসে জীবন যাপন করছি,ঘর থেকে বের হলেই প্রতিনিয়ত দেখা হচ্ছে,কথা হচ্ছে,লেনদেন বা সামাজিকভাবে বসবাস তবুও যার সাথে যার ব‍্যক্তিগত সম্পর্ক যেমন ঠিক সে মনোভাব ভেতরে পোষন করছি।চক্ষু লজ্জায় প্রকাশ না করলেও ভাবে বুঝা এতটা মুসকিল নয়।এতে করে সামনের দিনগুলোতে সমাজ ব‍্যবস্থায় মানবিক মূল‍্যবোধের মারাত্মক অবনতির অসনি সংকেত বলে ধারণা করলে ভূল হবেনা।

বাচ বিচার করা যাচাই বাচাই করা চিন্তা ভাবনা করা নিজের বিবেক খরচ করে ভালো মন্দ জেনে উপকারির প্রতি সদয় হওয়া এসব আমাদের বর্তমান সমাজ থেকে উধাও হয়ে গেছে।

কেনো?আমরা এত সংকীর্ণ মন মানসিকতার অসুস্থ চর্চায় ভালো কোন বিষয়কেও খারাপ দেখার মতো অসুস্থ প্রতিযোগিতায় মেতে উঠছি।সমাজের প্রথম শ্রেনীর মান মর্যাদাওয়ালা শিক্ষিত সুশীল ও সচেতন মানুষ রুপে দাবী করা মানুষ হয়েও আমাদের নীতি নৈতিকতা,বিবেক আর মনুষ‍্যত্ব কি ভালো মন্দ,ন‍্যায় অন‍্যায় বুঝার মতোও সচল নেই?

কথাগুলো কাউকে উদ্দেশ্যে প্রনোদিত হয়ে বলছিনা।সবখানেই পারিপার্শ্বিক অবস্থা দেখে এই উপলব্দি থেকে বলছি হয়তবা আমার প্রানের বাংলাদেশের প্রতিটি স্থরেই ব‍্যতিক্রম নয়।
সত‍্যিই সত‍্যিই ভালো মানুষের বেশে খারাপ করলে তাকে খারাপ বলি সে কাছের লোক হোক বা দূরের এবং কেউ যদি ব‍্যক্তিগতভাবে অপছন্দের মানুষও হয় যদি সে ভালো কাজ করে সেটা ভালো বলি।আপনি এলাকার মুরব্বী,সকলের জিম্মাদার,আপনার কাজে আচরনে বিচারে আদরে এলাকার সবাই আপনার আপন।মতের বা ভিন্ন মতের ফারাক কেন থাকবে কেউ বুকের কেউ পিটের না।তবেই আপনি হবেন প্রকৃত জিম্মাদার।

যেকোন বিষয়ে প্রথমে নেতিবাচক বা নেগেটিভ মনোভাব পোষন নাকরে ইতিবাচক বা ভালো চিন্তা করি।ভেবে দেখুনতো এই মাটিতেই আমার আপনার মা বাবা জীবন কাটিয়ে চলে গেছেন।আমাদের ও একদিন যেতে হবে।আমাদের পূর্ব পুরুষেরা সমাজে পরস্পরের প্রতি সোহার্দ‍্য সম্পীতির প্রতি আন্তরিক ছিলেন বলে আমাদের প্রজন্ম ভালো আছি।এখন আমরা যদি রেষারেষি বা প্রতিহিংসা পরায়ন না হয়ে মিলে মিশে চলি তাহলে আমাদের অনাগত প্রজন্ম ভালো থাকবে।

দেশের শেষ সীমান্তে শেষ ডূখন্ডের এই টেকনাফে আমরা যুগ যুগ ধরে সামাজিক রীতি নীতি ইতিহাস ঐতিহ্য ও প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ জনপদে বসবাস করে আসছি।এটা সোনার রঙের সুপারির জনপদ,এটা দেশের উন্নতমানের পানের জনপদ,এই জনপদ কৃষিতে চাষে গৃহস্থলীতে সোনালী ধানের জনপদ,এ জনপদের লোনা পানি সুর্য‍্যের তাপে লবন উৎপাদনের জনপদ,আমার মায়ের গ্রাম নদি ও সমুদ্রবেষ্টিত এখানে জীবন্ত তরতাজা মাছ দিয়েই আমরা তিন বেলা ভাত খাই।দেশের বেশিরভাগ উন্নতমানের শুটকি এখানেই হয়।তরমুজ নারিকেল থেকে ছয় ঋতুর মৌসুমী ফলে/ ফসলে ভরপুর আমাদের অঞ্চল। শিক্ষা সংস্কৃতি রাজনীতিতেও আমরা আজ পিছিয়ে নেই।মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে অবদান রাখা জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান অকুতুভয় বীর মুক্তিযোদ্ধা,খ‍্যাতিমান রাজনৈতিক ব‍্যক্তিত্ব,বিশ্বমানের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার,কৃষিবীদ,সচিব,প্রকৌশলী,
কবি,সাহিত‍্যিক,সাংবাদিক,উকিল,শিল্পী,প্রশাসনিক কর্মকর্তা সহ দেশের প্রতিটি পর্যায়ে জাতীয়ভাবে অবদান রাখার মতো গর্বিত সন্তানও জন্ম দিয়েছেন আমার টেকনাফের মায়েরা।

পর্যটনের জন‍্য এটা দেশের সর্ববৃহৎ সম্ভাবনার জনপদ।সবকিছুতেই মহান আল্লাহ্ আমাদের সমৃদ্ধ করেছেন এটা বিশ্ববাসি জানুক এবং আমাদের গায়ে কলঙ্কের যে দাগ লেগে আছে সেটা মুঁছে যাক।যার যে অবস্থান সেখান থেকে যতটুকু সম্ভব আমার মায়ের মেটো পথের গ্রাম ও ইতিহাস ঐতিহ্য তূলে ধরি।আমরা ফিরে আসি পূর্ব পুরুষদের জীবনধারায়।এতে করে দেশের অন‍্যান‍্য অঞ্চলে আমাদের প্রতি ধারণা পাল্টাবে এবং এলাকার ভাবমূর্তি ও সুনাম প্রসার ঘটবে।

চলুন আমরা নিজেরা নিজেদের প্রতি যত্নবান হই,দল মত নির্বিশেষে দেশ মাতৃকায় ও মানুষের কল‍্যাণে কাজ করি।কেউ সৃষ্টিশীল কিছু করতে চাইলে উৎসাহ ও সহযোগিতা করি এতে বিপদগামীরাও সুপথে আসতে অনুপ্রাণিত হবে।
এলাকার সুবিধা অসুবিধা একসাথে সমাধান করি।মিলে মিশে থাকি ভালো থাকি।
সকলের সু-স্বাস্থ‍্য কামনা করছি।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..