1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:১৯ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
চকরিয়ায় যাত্রীবাহি নাইট কোচে ডাকাতি : গুলিবিদ্ধ-১৫,আহত ৩ একজন শিক্ষক মুক্তিযোদ্ধার ইতি কথা টেকনাফের ইতিহাস ঐতিহ্য ও সমসাময়িক ভাবনা টেকনাফে শাহপরীর দ্বীপের বেড়িবাধ পুনঃনির্মাণ প্রকল্প পরিদর্শন করেন এমপি শাওন। হোয়াইক্যং নয়াবাজারের মহিয়সী নারী শামসুন নাহারের ২২তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ মাওলানা গোলাম সারোয়ার সাঈদীর ইন্তেকাল শাহ্পরীর দ্বীপে হতদরিদ্রদের মাঝে(IOM)সংস্থার নগদ ৩৫ হাজার টাকা বিতরণ উদ্বোধন করেন নুর হোসেন চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানের মৃত্যুতে টেকনাফ উপজেলা রেন্ট-এ কার,নোহা,মাইক্রো মালিক সমবায় সমিতির শোক প্রকাশ ইসলামপুর ইউপি নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদে নতুন মুখ সাংবাদিক শাহাজাহান শাহীন ভাল থেকো আব্বু

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত।

  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নিউজ ডেস্ক ::কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বন্ধুক যুদ্ধে ছয় রোহিঙ্গা নিহত হলো।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে টেকনাফের হ্নীলা ইউপির জামিদুড়া চাইল্ড ফেন্ডলি স্পেস অফিসের পেছনের পাহাড়ে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি,বন্ধুকযুদ্ধে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। তারা হলেন- এএসআই কাজী সাইফ উদ্দিন, কনস্টেবল নাবিল ও রবিউল ইসলাম।

নিহতরা দুই রোহিঙ্গা টেকনাফ নিবন্ধিত নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। নেছার ডাকাত ও করিম ডাকাত নামে তারা পরিচিত ছিল। এছাড়া যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামীর তালিকায়ও তাদের নাম ছিল।
বন্ধুকযুদ্ধের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাস বলেন, ‘জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাইল্ড ফেন্ডলি স্পেস অফিসের পেছনে যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামিরা অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে– এমন খবরের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি চালালে আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে সেখান ওই দুই রোহিঙ্গাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের উদ্ধার করে রোহিঙ্গা মাঝি ও স্থানীয়দের মাধ্যমে পরিচয় শনাক্ত করে টেকনাফ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার পাঠানো হয়। সেখানে তাদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।’
ওসি আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশীয় অস্ত্র, ৭ রাউন্ড শর্টগানের তাজা কার্তুজ ও ৯ রাউন্ড কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত দুই রোহিঙ্গার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।’

আপনার মন্তব্য দিন
এ জাতীয় আরো খবর..