1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
মহান বিজয় দিবস আজ, বীরের জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ - ডেইলি টেকনাফ
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০২:৩৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
টেকনাফে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর কোমলমতী শিক্ষার্থীদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করেন: সাবেক এমপি বদি টেকনাফ পৌরসভার নিজস্ব ভবন নির্মাণ করা হবে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ শাহ্পরীর দ্বীপে ভাসমান ড্রামসেতু নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন নুর হোসেন চেয়ারম্যান টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের ঈদ পুণর্মিলনী ও সাধারন সভায় নতুন কমিটি গঠিত টেকনাফের আবুল কালাম মেম্বারের জানাজায় হাজারো মানুষের ঢল টেকনাফে আবুল কালাম মেম্বারের মৃত্যুতে সাবেক এমপি বদি’র শোক কক্সবাজার জেলায় শ্রেষ্ট পদক পেলো ওসি সহ টেকনাফের ৩কর্মকর্তা বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলে সমিতি টেকনাফ পৌর শাখর কমিটি অনুমোদন টেকনাফ পৌর এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষজনের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম টেকনাফ উপজেলার ন‍্যাচার পার্ক সংলগ্ন খেলার মাঠ দখলমুক্ত করতে মানববন্ধন

মহান বিজয় দিবস আজ, বীরের জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ

  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮
অনলাইন রিপোর্ট | 

মহান বিজয় দিবস আজ, বাঙালি জাতির হাজার বছরের শৌর্যবীর্য এবং বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিবস। বীরের জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার দিন। আজ বাঙালির বীরের জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার দিবস। পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশ নামে একটি স্বাধীন দেশের অভ্যুদয়ের দিন।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দীর্ঘ নয়মাস সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরের বিকেলে রেসকোর্স ময়দানে(বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) মিত্র বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে হানাদার পাকিস্তানী বাহিনী।
যেসব অস্ত্র দিয়ে বর্বর পাকিস্তানী বাহিনী দীর্ঘ নয়মাস ৩০ লাখ বাঙালিকে হত্যা করেছে, দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম কেড়েছে, সেসব অস্ত্র পায়ের কাছে নামিয়ে রেখে ব্যর্থতা ও অপমানের গ্লানি নিয়ে লড়াকু বাঙালির কাছে পরাজয় মেনে নেয় তারা। সেই থেকে বিজয় দিবস পালিত হচ্ছে প্রতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর।
এবারের বিজয় দিবস পালিত হবে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক শক্তির ধারক-বাহকদের প্রত্যাখ্যান করে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে বিজয়ী করার প্রত্যয়ে উজ্জবিত জাতি দিবসটি পালন করবে। অন্যদিকে অফুরন্ত আত্মত্যাগ এবং রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এই মহান বিজয়ের ৪৭ বছর পূর্ণ হবে আজ।
সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে জনতার ঢল নামবে। শ্রদ্ধার সঙ্গে তারা শহীদের উদ্দেশে নিবেদন করবে পুষ্পাঞ্জলি। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সব প্রান্তের মানুষ অংশ নেবে এই বিজয় উৎসবে।
বঙ্গবন্ধুর বজ্রনিনাদ ভাষণ আর মুক্তিযুদ্ধের সময়ের জাগরণী গানে আকাশ-বাতাস হবে মুখর। এবারের বিজয় দিবস পালিত হবে ভিন্ন প্রেক্ষাপটে। শোক আর রক্তের ঋণ শোধ করার গর্ব নিয়ে উজ্জীবিত জাতি দিবসটি পালন করবে অন্যরকম অনুভূতি নিয়ে।
মহান বিজয় দিবসে উপলক্ষে আলাদা বাণীতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং জাতীয় সংসদের বিরোধীদলের নেতা রওশন এরশাদ দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশবাসীকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।
বিজয় দিবস সরকারি ছুটির দিন। সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। রাজধানীসহ দেশের বড় বড় শহরের প্রধান সড়ক ও সড়কদ্বীপ জাতীয় পতাকায় সজ্জিত করা হবে।
রাতে গুরুত্বপূর্ণ ভবন ও স্থাপনায় করা হবে আলোকসজ্জা। হাসপাতাল, কারাগার ও এতিমখানাগুলোতে উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হবে। সংবাদপত্র বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে, বেতার ও টিভি চ্যানেলগুলো সম্প্রচার করবে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।
১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ‘যার যা কিছু আছে’ তা নিয়েই স্বাধীনতার জন্য প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান। তিনি বলেন ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।
পরে ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার আগে বঙ্গবন্ধু আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে বাঙালিরা অস্ত্র হাতে পাকিস্তানী হানাদারদের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।
এই মুক্তিযুদ্ধে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত, ভুটান, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সাহায্য-সহযোগিতা করে। অবশেষে বাঙালি দীর্ঘ নয়মাস যুদ্ধ করে বুকের তাজা রক্তে রাঙিয়ে ছিনিয়ে আনে ফুটন্ত সকাল।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..