1. engg.robel.seo@gmail.com : DAILY TEKNAF : DAILY TEKNAF
  2. bandhusheramizan@gmail.com : Mizanur Rahman : Mizanur Rahman
  3. engg.robel@gmail.com : The Daily Teknaf News : Daily Teknaf
মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ইয়াবা ঢুকে- এএসপি ইকবাল হোসাইন - ডেইলি টেকনাফ
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
কক্সবাজারে ৫৩৫ কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন মাদক ধ্বংস করছে বিজিবি ঈদগাঁও থানা উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পরিচিতি ও জরুরি সভা অনুষ্ঠিত শক্তিশালী রামুকে হারিয়ে ইতিহাসের প্রথমবার ফাইনালে টেকনাফ টেকনাফ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে মোঃ আলমগীরকে কাউন্সিলর হিসেবে দেখতে চাই এলাকাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাবরাং ইউ,পি ছাত্রলীগের সাঃসম্পাদক নজরুল ইসলামের খোলা চিঠি টেকনাফে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা,আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের প্রতিবাদ ও নিন্দা টেকনাফ উপজেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব এজাহার মিয়ার নববর্ষের শুভেচ্ছা সাবরাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কালামের নতুন বছরের শুভেচ্ছা অসুস্থ ছেনোয়ারার চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা দান করলেন টেকনাফ পৌর মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে ইয়াবা ঢুকে- এএসপি ইকবাল হোসাইন

  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০

নিউজ ডেস্ক :: কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসাইন বলেছেন, মিয়ানমার রাষ্ট্রীয় আগ্রাসন হিসেবে বাংলাদেশে ইয়াবা ঢুকিয়ে দিচ্ছে। এই ইয়াবা পাচারের সাথে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সরাসরি জড়িত। মিয়ানমার পরিকল্পিতভাবে ইয়াবার আগ্রাসনের মাধ্যমে বাংলাদেশের ক্ষতি করার চেষ্টা করছে।

বৃৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কক্সবাজার পাবলিক হয় ময়দানে ৩০তম মাদকদ্রব্য দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত মাদক বিরোধী আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ইয়াবার আগ্রাসন বন্ধে পুলিশসহ সব আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অত্যন্ত তৎপর হয়ে সব সব সময় কাজ এসেছে এবং করে যাচ্ছে। ইয়াবার আগ্রাসন রুখতে গিয়ে অনুসন্ধান করে আমরা নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছি। আমরা অনুসন্ধানে নিশ্চিত হয়েছি বাংলাদেশের ইয়াবা পাচারের সাথে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী জড়িত রয়েছে। সে দেশের সেনাদের তত্ত¡াবধানেই বাংলাদেশে পাচার করা হয় ইয়াবার চালান।

অতিরিক্ত পুলিশ মোঃ ইকবাল হোসাইন বলেন, রাষ্ট্রীয় আগ্রাসনের অংশ হিসেবে মিয়ানমারের সেনারা সরাসরি জড়িত হয়ে বাংলাদেশে ইয়াবা পাঠায়। সীমান্ত অঞ্চলে নিয়োজিত সেনা সদস্যরা ইয়াবা ব্যবসার সাথেও জড়িত। তবে তাদের মূখ্য উদ্দেশ্য ইয়াবা দিয়ে বাংলাদেশকে ধ্বংস করে দেয়া।

ইয়াবা প্রতিরোধে তাগিদ দিয়ে তিনি বলেন, শুধু ইয়াবার আগ্রাসনেই বাংলাদেশ আজ মারাত্মকভাবে জর্জরিত। ইয়াবার এই আগ্রাসন আমাদের রাষ্ট্রীয় কাঠামোতে পর্যন্ত আঘাত হেনেছে। ইয়াবার আঘাতে আমাদের সমাজ-পরিবার আজ চরমভাবে বিপর্যস্ত। ইয়াবা প্রতিরোধে পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বহু প্রচেষ্টা অব্যাহত করেছে। কিন্তু সামাজিক সহযোগিতা ছাড়া কোনো দিন ইয়াবা নির্মূল সম্ভব হবে না। তাই ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে ইয়াবার বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই মাদক বিরোধী সমাবেশ প্রধান অতিথি ছিলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ শামসুল হক টুকু। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার ০৩ (সদর- রামু) আসনের সংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা আহমদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান, সিভিল সার্জন আবদুল মতিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কক্সবাজার অফিসের সহকারী পরিচালক সোমেন মন্ডল।

সুত্র :সিবিএন

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..